মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রশিক্ষণ

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, চাঁদপুর জেলা কর্তৃক পরিচালিত কার্যক্রমসূহঃ

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, চাঁদপুর জেলা কর্তৃক পরিচালিত কার্যক্রমসূহ নিমণরুপঃ-

* বেকার যুবদের দক্ষতাবৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ কর্মসূচি।

                       * দারিদ্র বিমোচন ও ঋণ কর্মসূচী।

                       * প্রশিক্ষিত যুবদের আত্মকর্মসংস্থানের জন্য উপকরণ সরবারহ কর্মসূচী।

                       * বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ বিষয়ে উদ্ভুদ্ধকরণ ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক কার্যক্রম।

                       * যুব সংগঠন তালিকাভূক্তকরণ কার্যক্রম।

                       * যুব সংগঠনকে অনুদান কার্যক্রম।

                       * যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর ও বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী যুব সংগঠনের মধ্যে কর্মসূচী ভিত্তিক নেটওয়ার্কিং জোরদারকরন কার্যক্রম।

                       * জাতীয় যুবদিবস পালন কার্যক্রম।

* আন্তর্জাতিক যুবদিবস পালন কার্যক্রম।

* আত্মকর্মসংস্থানের সফলতার স্বীকৃতি স্বরূপ পুরস্কার কার্যক্রম।

* জেন্ডার ও প্রজনন স্বাস্থ্য সচেতনতা কার্যক্রম।

* সেমিনার, কর্মশালা, সিম্পোজিয়াম ও যুব সমাবেশ।

* ক্রীড়া, সংস্কৃতিক কার্যক্রম।

* গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগীর প্রাথমিক চিকিৎসা ও টিকা কর্মসূচী বাস্তবায়নে কীটবক্স বিতরণ কার্যক্রম।

* গবেষণা কার্যক্রম।

# বেকার যুবদের দক্ষতাবৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ কর্মসূচিসমূহঃ

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, চাঁদপুর জেলা কার্যালয় কর্তৃক পরিচালিত বেকার যুবদের দক্ষতাবৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ কর্মসূচিসমূহ হলো-

(ক) প্রতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ কোর্সসমূহঃ প্রতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ তিন ধরণের যথাঃ

                                    ১। যুব প্রশিক্ষণ ও আত্মকর্মসংস্থান কর্মসূচী

২। বেকার যুবদের কারিগরি প্রশিক্ষণ কর্মসূচী

৩। যুব প্রশিক্ষণ কর্মসূচী

১। যুব প্রশিক্ষণ ও আত্মকর্মসংস্থান কর্মসূচীঃ 

                        যুবদের দক্ষতাবৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান এবং প্রশিক্ষনোত্তর আত্মকর্মসংস্থানে উদ্বুদ্ধকরণ ও ঋণ সহায়তাদানের উদ্দেশ্যে এ কর্মর্সূচী গ্রহণ করা হয়। এ প্রশিক্ষণের আওতায় জেলা পর্যায়ে দুটি  -

১। মৎস চাষ প্রশিক্ষণ কোর্স

২। পোশাক তৈরী ও দর্জি বিজ্ঞান প্রশিক্ষণ কোর্স

এ ছাড়াও জেলার অধীনস্থ ০৮টি উপজেলায় বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

২। বেকার যুবদের কারিগরি প্রশিক্ষণ কর্মসূচীঃ

দেশের শিক্ষিত বেকার যুবদের কারিগরি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ মানব সম্পদে পরিনত করা এবং স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলাই এর মূল উদ্দেশ্য। এ প্রশিক্ষণের আওতায় জেলা পর্যায়ে চারটি ট্রেডে বেকার যুবদের হাতে কলমে বাস্তবভিত্তিক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। ট্রেড সমূহ হলো  -

১। কম্পিউটার বেসিক কোর্স  ৬ (ছয়) মাস।

২। ইলেকট্রিক্যাল এন্ড হাউজ ওয়্যারিং প্রশিক্ষণ কোর্স  ৬ (ছয়) মাস।

৩। ইলেকট্রনিক্স প্রশিক্ষণ কোর্স ৬ (ছয়) মাস।

৪। রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ার-কন্ডিশনিং প্রশিক্ষণ কোর্স ৬ (ছয়) মাস।

৩। যুব প্রশিক্ষণ কর্মসূচীঃ  

বেকার যুবক ও যুবমহিলাদের গবাদিপশু-হাঁস-মুরগী পালন, মৎস্যচাষ ও কৃষি বিষয়ে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যহারের কালাকৌশল সম্পর্কিত ০২মাস ১৫দিন মেয়াদী আবাসিক প্রশিক্ষ প্রদান এবং তাদেরকে আত্মকর্মসংস্থানে নিয়োজিত করাই এর উদ্দেশ্য । যুবদেরকে প্রশিক্ষণের পাশাপাশি সম্পদ সংরক্ষণের জন্য প্রাথমিক চিকিৎসা সম্পর্কেও জ্ঞানদান করা হয়। এ প্রশিক্ষণ কোর্সেটির নাম-

* গবাদিপশু, হাঁস-মুরগী পালন, প্রাথমিক চিকিৎসা, মৎস চাষ ও কৃষি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কোর্স।

 

(ক) অ-প্রতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ কোর্সসমূহঃ

 

অত্র জেলার অধীনস্থ ০৮টি উপজেলা হতে বিভিন্ন বিষয়ে অ- প্রতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। সেগুলো হলো-

হাঁস-মুরগী পালন ও খামার স্থাপন

ইলেকট্রিক হাউজ ওয়্যারিং

গাভী পালন

আধুনিক পদ্ধিতে মৎস চাষ

বাঁশ ও বেতের কাজ 

ছাগল পালন 

গবাদীপশু মোটা তাজাকরণ 

কাপড়/চামড়ার ব্যাগতৈরী 

বাটিক প্রিন্টিং

১০

পাটজাত পণ্য প্রস্ত্ততকরণ 

১১

নকশী কাঁথা তৈরী

১২

মৌমাছী পালন

১৩

রিক্সা/সাইকেল/ভ্যান মেরামত 

১৪

বনায়ন ও নার্সারী

১৫

স্ক্রীন প্রিন্টিং 

১৬

আচার-জ্যাম-জেলী প্রস্ত্ততকরণ

১৭

মৃৎ শিল্পের কাজ

১৮

তাঁতের কাজ 

১৯

কাঠের কাজ/ লোহার কাজ/রাজ মিস্ত্রির কাজ

২০

পোশাক তৈরী

২১

ব্লাক প্রিন্টিং 

২২

রেডিও/টিভি/ভিসিআর/ভিসিপি/ভিসিডি মেরামত

২৩

মাশরুম চাষ

২৪

ওয়েল্ডি 

  এবং স্থানীয় চাহিদা ভিত্তিক যে কোন ট্রেডে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে।

 

# দারিদ্র বিমোচন ও ঋণ কর্মসূচীঃ

 

বেকার যুবদের প্রশিক্ষণ দেয়ার পর প্রশিক্ষণলব্দ জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে আত্মকর্মসংস্থানের মাধ্যমে আত্মনির্ভরশীল হওয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করা হয়। প্রশিক্ষত যুবদের যুবঋণ সহায়তা ও উদ্ধুদ্ধকরণের মাধ্যমে আত্মকর্মে নিয়োজিত করা হয়।  (১) যুব ঋণ কর্মসূচীঃ যুব ঋণ কর্মসূচী দুই ধরনের যথাঃ

(ক) যুব প্রশিক্ষণ ও আত্মকর্মসংস্থান কর্মসূচীঃ

যুবদের দক্ষতাবৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান এবং প্রশিক্ষণোত্তর আত্মকর্মসংস্থানে উদ্বুদ্ধকরণ ও ঋণ সহায়তাদানের উদ্দেশ্যে এ কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। এ কর্মসূচীর আওতায় জেলার ৮টি উপজেলায় এর কার্যক্রম রয়েছে। বিভিন্ন  বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য এ কর্মসূচীর আওতায় জেলা পর্যায়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রয়েছে । এছাড়া  স্থানীয় চাহিদার ভিত্তিতে বিভিন্ন ট্রেডে স্বল্প মেয়াদী  প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য উপজেলা পর্যায়ে ভ্রাম্যমান প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রয়েছে ।

এ কর্মসূচীর আওতায় প্রশিক্ষিত বেকার যুবদেরকে আত্মকর্মসংস্থানে লক্ষ্যে প্রাতিষ্ঠানিক/অ-প্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডে একক ঋণ প্রদান করাহয়। প্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডে একজন প্রশিক্ষত যুবককে ১০,০০০/-০থেকে ৫০,০০০/- টাকা পর্যন্ত এবং অ-প্রতিষ্ঠানিক ট্রেডে ৫,০০০/- থেকে ২৫,০০০/- টাকা  পর্যন্ত ঋণ প্রদান করা হয়, গ্রেস পিড়িয়ড ০৩ মাস, ৪র্থ মাস থেকে কিস্তি শুরু হয় এবং কিস্তির সংখ্যা ২৪ টি, এক জনকে পর পর দুইবার ঋণ দেয়া হয়, ১০% ক্রমহ্রাসমান পদ্ধিতিতে সরল হিসাবে সার্ভিস চার্জ নেয়া হয়, কোন দন্ড সুদ নেই ।

 

(খ) পরিবারভিত্তিক কর্মসংস্থান কর্মসূচীঃ

পরিবারভিত্তিক ঋণ কার্যক্রমের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো পারিবারিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করে বেকার দরিদ্র জনগোষ্ঠিকে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য স্ব-কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে দক্ষতাবৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ ও ঋণ প্রদান, এ কর্মসূচীর আওতায় পারিবারিক

ঐতিহ্যগত পোশাকে কাজে লাগিয়ে বেকারত্ব নিরসন ও পারিবারিক সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য সমুন্নত রাখার কার্যক্রম সম্প্রসারণ, জীবন-যাপনের মান ধাপে ধাপে উন্নয়নকল্পে পরিবারের সঞ্চয় অভ্যাস গড়ে তোলা এবং নারীর ক্ষমতায়ন শিক্ষা, স্বাস্থ্য-পরিচর্যা, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা এবং পরিবেশ উন্নয়নে জনগোষ্ঠিকে উদ্বুদ্ধ করা।

            এ কর্মসূচীর আওতায় একই পরিবারের অথবা নিকট আত্মীয় বা প্রতিবেশী পরিবারের পরস্পরের প্রতি আস্থাভাজনদের নিয়ে ৫ সদস্যদের একটি গ্রুপ গঠন করা হয় । একই গ্রামের স্থায়ী ৮ থেকে ১০টি গ্রুপ নিয়ে একটি কেন্দ্র গঠিত হয়। সাফল্যের ভিত্তিতে প্রতি সদস্যকে ১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ ও ৫ম দফায় যতাক্রমে ৮০০০/- , ১০০০০/-, ১২০০০/-, ১৪০০০/- ও ১৬০০০/- টাকা করে ঋণ প্রদান করা হয়। এছাড়া ৫ম দফা পর্যন্ত সফল ঋণ পরিশোধকারীকে (প্রতি গ্রুপহতে একজনকে) ৩০,০০০/- থেকে ৫০,০০০/- টাকা পর্যন্ত এন্টারপ্রাইজ ঋণ প্রদান করা হয়। ঋণ প্রদানের ১৪/২১ দিন পর কিস্তি শুরু হয় অথ্যাৎ গ্রেস পিড়িয়ড ১৪/২১ দিন। ৫০ সপ্তাহে ৫০ কিস্তিতে আসল আদায় হয় এবং ২ সপ্তাহে ২ কিস্তিতে সার্ভিজ চার্জ নেয়া হয়, ১০% ক্রমহ্রাসমান পদ্ধিতিতে সরল হিসাবে সার্ভিস চার্জ নেয়া হয় ।