মেনু নির্বাচন করুন

জনপ্রশাসন পদক, ২০১৮

জনপ্রশাসন পদক-২০১৮ 

ডিজিটাল সনদ দেয়ার ব্যবস্থা করায় জেলা পর্যায়ে কারিগরি ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত শ্রেণীতে এই পদক পান চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান

স্থানীয় উদ্যোগে গৃহহীনদের গৃহদান করায় চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শওকত ওসমান, সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহবুবুল আলম তালুকদার ও চাঁদপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়–য়া এ পদক পান।

জাতীয় পর্যায়ে চলতি বছর ব্যক্তিগত শ্রেণীতে জনপ্রশাসন পদক পাচ্ছেন জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব কামরুল আহসান তালুকদার ও নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার সাব-রেজিস্ট্রার শাহাজাহান আলী। ময়মনসিংহের ভালুকায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদে থাকাবস্থায় ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ চর্চার মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিস্তারের উদ্যোগ গ্রহণ করায় কামরুলকে এ পদক দেয়া হচ্ছে। ‘ভূমি ও রেজিস্ট্রেশন সেবা’ এবং ‘দলিল ক্যাকুলেটর’ নামে দুটি অত্যাধুনিক মোবাইল অ্যাপস তৈরি করায় শাহাজাহানকেও একই পদক দেয়া হচ্ছে। ২৩ জুলাই রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এই দু’জনসহ ২০১৮ সালের পদকপ্রাপ্তদের হাতে পদক ও সম্মাননা স্মারক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।


শ্রবণ ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী স্কুল প্রতিষ্ঠা করায় জেলা পর্যায়ের সাধারণ ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত শ্রেণীতে এ পদক পেয়েছেন গাজীপুরের শ্রীপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহেনা আকতার। একই ক্যাটাগরিতে নারী উন্নয়নে অবদান রাখায় মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর এবং লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠা করায় সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক সাবিরুল ইসলাম এ পদক পেয়েছেন। উত্তরা গণভবনের সংস্কার ও পর্যটন সুবিধা বাড়ানোর জন্য এ ক্ষেত্রে দলগত শ্রেণীতে পদকের জন্য মনোনীত হয়েছেন নাটোরের জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজ্জাকুল ইসলাম, নাটোর সদরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন আক্তার বানু, নাটোর গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর অনিন্দ্য মণ্ডল। স্থানীয় উদ্যোগে গৃহহীনদের গৃহদান করায় চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শওকত ওসমান, সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহবুবুল আলম তালুকদার ও চাঁদপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়–য়া এ পদক পাচ্ছেন। এছাড়া বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করায় জেলা পর্যায়ে এ পদক পাচ্ছেন ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াঢাঙ্গী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আ. মান্নান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবদুর রহমান ও ব্যানবেইজের সহকারী প্রোগ্রামার লিয়াজ মাহমুদ লিমন। ডিজিটাল সনদ দেয়ার ব্যবস্থা করায় জেলা পর্যায়ে কারিগরি ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত শ্রেণীতে এই পদক পাচ্ছেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান। একই ক্যাটাগরিতে এক ক্লিকেই অর্পিত সম্পত্তি ইজারা মামলা নবায়ন করার জন্য রাজশাহীর দুর্গাপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার সাদাতও এ পদক পাচ্ছেন। এছাড়াও কারিগরি ক্ষেত্রে দলগতভাবে এ পদক পাচ্ছেন ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান, সহকারী ভূমি সংস্কার কমিশনার রেজাউল কবীর, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগামের ন্যাশনাল কনসালটেন্ট মোহাম্মদ এনামুল হক, কুড়িগ্রামের সাবেক জেলা প্রশাসক এবিএম আজাদ, এম নুরুল আমিন, আবু সালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস, কুড়িগ্রামের সাবেক সহকারী কমিশনার আবদুল ওয়ারেছ আনছারী, সাবেক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম সেলিম এবং কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমিন আল পারভেজ।সূত্র বলছে, ২ জুলাই মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভাকক্ষে জনপ্রশাসন পদক-২০১৮ প্রাপ্তদের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়। এছাড়া জাতীয় পর্যায়ে সাধারণ ক্ষেত্রে বাল্যবিবাহ ও যৌন হয়রানি প্রতিরোধে অবদান রাখায় দলগত শ্রেণীতে এ পদক পাচ্ছেন ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আবু জাফর রিপন ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) এরশাদ উদ্দিন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জিল্লুর রহমান, আইসিটির সহকারী প্রোগ্রামার মুহাম্মদ মনিরুল ইসলাম ও উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা জান্নাতুল ফেরদৌস। এদিকে প্রবাসী কল্যাণ ও বাংলাদেশের ব্র্যান্ড নেম সৃষ্টিতে অবদান রাখায় প্রাতিষ্ঠানিক কোটায় এ পদক পাচ্ছে গ্রিসের এথেন্সে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস। কারিগরি ক্ষেত্রে দলগত শ্রেণীতে এ পদক পাচ্ছেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) এনএম জিয়াউল আলম, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব কবির বিন আনোয়ার, এটুআই ই-সার্ভিসের পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) আবদুল মান্নান, পরিচালক (উপ-সচিব) মোহাম্মদ লুৎফর রহমান ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মেহেদী হাসান। আর ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে কর্মচারী কল্যাণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করায় প্রাতিষ্ঠানিক শ্রেণীতে এ পদক পাচ্ছে বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড।


Share with :

Facebook Twitter